প্রথম জাতকের মৃত্যু

১. প্রভু তখন মোশিকে বললেন, “মিশর এবং ফরৌণের বিরুদ্ধে আমি আরেকটি বিপর্যয় বয়ে আনব। তারপর, সে তোমাদের সবাইকে পাঠিয়ে দেবে। বস্তুত, সে তোমাদের চলে যেতে বাধ্য করবে।

২. তুমি ইস্রায়েলের লোকেদের এই বার্তা পাঠাবেঃ ‘নারী ও পুরুষ নির্বিশেষে তোমরা নিজের নিজের প্রতিবেশীদের কাছ থেকে সোনা ও রূপোর অলংকার চাইবে।

৩. প্রভু মিশরীয়দের তোমাদের প্রতি দয়ালু করে তুলবেন। মিশরের লোকেরা, এমনকি ফরৌণের কর্মচারীরা মোশিকে এক মহান ব্যক্তির মর্যাদা দেবে।’

৪। মোশি লোকদেরকে জানাল, “প্রভু বলেছেন, আজ মধ্যরাত নাগাদ আমি মিশরের মধ্যে দিয়ে যাব।

৫. এবং তার ফলে মিশরীয়দের সমস্ত প্রথমজাত পুত্ররা মারা যাবে।

৬. তারপর, সমস্ত মিশরে এমন জোরে কান্নার রোল উঠবে যা অতীতে কখনো হয়নি এবং যা ভবিষ্যতেও কখনো হবে না।

৭. কিন্তু ইস্রায়েলের লোকেদের কোন ক্ষতি হবে না। এমনকি কোন কুকুর পর্যন্ত ইস্রায়েলীয়দের অথবা তাদের পশুদের দিকে ঘেউ ঘেউ করে চিৎকার করবে না। এর ফলে, তোমরা বুঝতে পারবে আমি মিশরীয়দের থেকে ইস্রায়েলীয়দের সঙ্গে কতখানি অন্য রকম আচরণ করি।

৮. তখন তোমাদের সমস্ত (মিশরীয় কর্মচারীরা) নতজানু হবে এবং আমার উপাসনা করবে। তারা বলবে, “তুমি তোমার সমস্ত লোককে তোমার সঙ্গে নিয়ে চলে যাও।” তখন মোশি ক্রোধে ফরৌণকে ছেড়ে চলে গেল।”

৯. প্রভু এরপর মোশিকে আরও বললেন যে, ” ফরৌণ তোমার কথা শোনেনি। কেন শোনেনি? শোনেনি বলেই তো আমি মিশরের ওপর আমার মহাশক্তির প্রভাব দেখাতে পেরেছিলাম।”

১০. মোশি ও হারোণ ফরৌণের কাছে গিয়েছিল এবং এই সমস্ত অলৌকিক কাজগুলো করেছিল। কিন্তু প্রভু ফরৌণের হৃদয়কে উদ্ধত করেছিলেন। যাতে সে ইস্রায়েলীয়দের তার দেশ থেকে যেতে না দেয়।

0
Would love your thoughts, please comment.x
()
x