নাসরীয়দের ব্যবস্থা

১. প্রভু মোশিকে বললেন,

২. “ইসায়েলের লোকেদের বলো কোন পুরুষ বা স্ত্রী নাসরীয় হবার জন্য অর্থাৎ প্রভুর জন্য নিজেকে পৃথক করে তবে,

৩. ঐ সময়ে সেই ব্যক্তি যেন কোনো দ্রাক্ষারস বা অন্য কোনো কড়া পানীয় পান না করে। সেই ব্যক্তি দ্রাক্ষারস বা অন্য কোনো কড়া পানীয় থেকে তৈরী সিরকাও পান করবে না। এবং তাজ৷ দ্রাক্ষা কিংবা কিশমিশ খাবে না।

৪. আলাদা থাকার এই বিশেষ সময় দ্রাক্ষা থেকে তৈরী কোনো কিছুই সে খাবে না। এমনকি দ্রাক্ষার বীজ অথবা খোসাও নয়।

৫. ‘নাসরীয় হয়ে থাকার এই বিশেষ সময়ে সেই ব্যক্তি তার চুলও কাটবে না। এই বিশেষ সময়টি শেষ না হওয়া পর্যন্ত সে অবশ্যই পবিত্র থাকবে। সে তার চুলকে বড় হতে দেবে। সেই ব্যক্তির চুল হচ্ছে ঈশ্বরের কাছে তার শপথের একটি বিশেষ অংশ। ঈশ্বরের কাছে উপহার হিসেবে সে তার চুল দান করবে। সুতরাং আলাদা থাকার এই বিশেষ সময়টি শেষ না হওয়া পর্যন্ত সেই ব্যক্তি তার চুলকে লম্বা হতে দেবে।

৬. “পৃথক থাকার এই বিশেষ সময়ে একজন নাসরীয় কোনো মৃতদেহের কাছে অবশ্যই যাবে না। কারণ, সেই ব্যক্তি প্রভুর কাছে নিজেকে সম্পূর্ণ সমর্পণ করেছে।

৭. এমন কি যদি তার নিজের পিতামাতা কিংবা ভাই অথবা বোন মারা যায়, তাহলেও সে অবশ্যই তাদের স্পর্শ করবে না। এটা তাকে অশুচি করে দেবে। তাকে অবশ্যই দেখাতে হবে যে, সে পৃথক এবং সম্পূর্ণভাবে সে নিজেকে ঈশ্বরের কাছে সমর্পণ করেছে। 

৮. পৃথক থাকার এই পুরে৷ সময়ে সে অবশ্যই সম্পূর্ণভাবে নিজেকে প্রভুর কাছে নিবেদন করবে।

৯. “এও হতে পারে যে, নাসরীয় এমন একজনের সঙ্গে আছে যে অকস্মাৎ মারা গেছে। যদি নাসরীয় এই মৃত ব্যক্তিকে স্পর্শ করে তবে সে অপবিত্র হয়ে যাবে। যদি তাই হয়, তবে নাসরীয় অবশ্যই মাথার সমস্ত চুল কেটে ফেলবে। (ঐ চুল তার বিশেষ প্রতিজ্ঞার একটি অংশ ছিল।) সে অবশ্যই সপ্তম দিনে তার চুল কাটবে, কারণ ঐ দিনে তাকে শুচি করা হবে।

১০. এরপর অষ্টম দিনে সেই নাসরীয় অবশ্যই দুটি ঘুঘু এবং দুটি পায়রার বাচ্চ৷ যাজকের কাছে নিয়ে আসবে। সমাগম তাঁবুর প্রবেশপথেই সে যাজকের কাছে এগুলিকে দিয়ে দেবে।

১১. তখন যাজক এদের একটিকে পাপ থেকে শুচি হবার জন্য উৎসর্গ করবে। অপরটিকে সে দাহ করার জন্য উৎসর্গ করবে। এই দাহ করা উৎসর্গই হবে নাসরীয়র পাপের প্রতিদান। (সে পাপী কারণ সে একটি মৃতদেহের কাছে ছিল।) ঐ সময়ে সেই ব্যক্তি ঈশ্বরের কাছে উপহার হিসাবে তার মাথার চুল দেবার জন্যে আবার শপথ করবে।

১২. “এর অর্থ হল, সেই ব্যক্তি আবার আলাদা থেকে ঈশ্বরের কাছে নিজেকে অবশ্যই সমর্পণ করবে। অবশ্যই সে একটি এক বছর বয়স্ক পুরুষ মেষ নিয়ে আসবে। এবং এই মেষ দোষাৰ্থক বলি হিসাবে উৎসর্গ করবে।

১৩. তার পৃথক থাকার প্রথম পর্যায়কে গণনা করা হবে না।

সে নতুন করে পৃথক থাকতে শুরু করবে। এটা অবশ্যই করতে হবে কারণ সে তার প্রথম পৃথক থাকার সময়ে একটি মৃতদেহ স্পর্শ করায় অশুচি হয়েছিল। তার পৃথক থাকার নির্দিষ্ট সময় শেষ হওয়ার পরে নাসরীয় অবশ্যই সমাগম তাঁবুর প্রবেশ পথে যাবে।

১৪. “এবং প্রভুর কাছে তার যা কিছু উৎসর্গ করার তা করবে। তার উৎসর্গ অবশ্যই হবে: একটি নিখুঁত এক বছর বয়স্ক পুরুষ মেষশাবক যা হোমবলির জন্যে উৎসর্গ করা হবে। একটি নিখুঁত এক বছর বয়স্ক স্ত্রী মেষশাবক য৷ পাপাৰ্থক বলির জন্যে উৎসর্গ করা হবে। একটি নিখুঁত মেষ যা মঙ্গল নৈবেদ্য জন্যে উৎসর্গ করা হবে।

১৫. এক ঝুড়ি রুটি যা খামিরবিহীন তৈরী (তেলের সঙ্গে খুব ভালো ময়দা মিলিয়ে তৈরী কেক)। এইসব কেকের ওপরে অবশ্যই তেল ছড়ানো থাকবে। এইসব উপহারের সঙ্গেই শস্য নৈবেদ্য এবং পেয় নৈবেদ্য উৎসর্গ করা হবে।

১৬. “যাজক এই সকল দ্রব্যসামগ্রী প্রভুর সামনে উপস্থিত করে তখনই পাপস্খালনের জন্যে বলি এবং হোমবলি উৎসর্গ করবেন। 

১৭. “যাজক খামিরবিহীন তৈরী এক ঝুড়ি রুটি প্রভুকে দেবেন। তারপর তিনি প্রভুর কাছে মঙ্গল নৈবেদ্য উৎসর্গের জন্যে সেই পুং মেষটিকে হত্যা করবেন। যাজক এটিকে শস্য নৈবেদ্য ও পেয় নৈবেদ্যর সাথেই প্রভুকে উৎসর্গ করবেন।

১৮. “এরপর নাসরীয় সমাগম তাঁবুর প্রবেশ পথে যাবে। সেখানে সে তার এই উৎসর্গ করা চুল কেটে ফেলবে এবং যে আগুন মঙ্গল নৈবেদ্যর জন্য উৎসর্গীকৃত নৈবেদ্যর নীচে জ্বলছে তাতে সেই চুল ফেলে দেওয়া হবে।

১৯. “নাসরীয় তার চুল কেটে ফেলার পরে যাজক তাকে পুং মেষের একটি সেদ্ধ করা স্কন্ধ এবং একটি পিঠে আর একটি সরুচাকলী ঝুড়ি থেকে দেবেন। এই দুটিই খামির ছাড়া তৈরী করা হবে।

২০. এরপর যাজক এইসব দ্রব্যসামগ্রী প্রভুর সামনে দোলাবেন। এটি হল দোলনীয় নৈবেদ্য। এইসব দ্রব্যসামগ্রী পবিত্র এবং এগুলো সবই যাজকের। এছাড়াও মেষের বুক এবং ঊরুও প্রভুর সামনে দোলান হবে। এইসব দ্রব্যসামগ্রীও যাজকের। এরপরে নাসরীয় ব্যক্তিটি দ্রাক্ষারস পান করতে পারে।

২১. “যে ব্যক্তি নাসরীয় শপথ করবে বলে মনস্থ করেছে তার জন্যে ঐগুলোই হল নিয়ম। ঐ ব্যক্তি অবশ্যই প্রভুকে ঐসব উপহার দেবে। এছাড়াও যদি কোনো ব্যক্তি আরও কিছু বেশী দিতে সক্ষম হয় এবং ত৷ দেবার জন্য শপথ করে থাকে, তাহলে তাকে অবশ্য‍ই তার শপথ রাখতে হবে। তবে তাকে অবশ্যই কমপক্ষে ঐসব জিনিসপত্র দিতেই হবে যা নাসরীয় শপথের নিয়মে তালিকাভুক্ত হয়েছে।”

যাজকের আশীর্বাদ

২২. প্রভু মোশিকে বললেন,

২৩. “হারোণ এবং তার পুত্রদের বলে দাও যে, এভাবেই তারা ইস্রায়েলের লোকেদের আশীর্বাদ করবে। তারা বলবে:

২৪. প্রভু তোমাদের আশীর্বাদ করুন এবং রক্ষা করুন।

২৫. প্রভু তোমাদের প্রতি সদয় হোন এবং তোমাদের করুণা প্রদর্শন করুন।

২৬. “প্রভু তোমাদের প্রার্থনার উত্তর দিন এবং তোমাদের শান্তি দিন।”

২৭. এরপর প্রভু বললেন, “ইস্রায়েলের লোকেদের আশীর্বাদ করার জন্যে হারোণ এবং তার পুত্ররা আমার নাম ব্যবহার করবে এবং আমি তাদের আশীর্বাদ করবে।”