রচনাকাল ১৬.৬.১৩৩২ – ২৭.১২.১৩৪০

ভূমিকা

পাঠশালায় শিক্ষকতা করিবার সময় ছাত্রদের অনুরোধে তাহাদের নাম যোগ করিয়া টুকরা টুকরা কাগজে দুই-একটি কবিতা লিখতাম এবং অবসর মতো অন্যান্য বিষয়েও দুই-একটি কবিতা লিখিতাম। ১৩৪০ সনে ঐসকল কবিতা একত্র করিয়া খাতায় লিখিয়া তাহার নাম রাখিয়াছিলাম ‘সীজের ফুল’।

‘সীজ’ একটি বৃক্ষের নাম, সাধারণত ইহাকে ‘সেউজ গাছ’ বলে। এই গাছে কখনো ফুল হয় না। সীজ গাছে ফুল হওয়া যেরূপ অসম্ভব, আমার পক্ষে (১৩২১ সনে পাঠশালায় ২য় শ্রেণী পর্যন্ত শিক্ষিতের) কবিতা রচনাও সেইরূপ অসম্ভব। তাই কবিতাগুলির নাম রাখা হইল ‘সীজের ফুল’ অর্থাৎ মূর্খের কবিতা।

প্রত্যেক অধ্যায়ের কবিতাগুলি রচনার কালক্রম অনুসারে সাজানো হইল এবং রচনার তারিখও উল্লেখ করা হইল। আর বইয়ের পরিশিষ্ট অংশে কয়েকটি কঠিন শব্দের অর্থ লিখিত হইল। ‘সীজের ফুল’- এ যে সকল ভুলত্রুটি থাকিয়া গেল, তাহার জন্য পাঠকদের নিকট ক্ষমা প্রার্থনা করি।

বিনীত

গ্রন্থকার

১৯ ভাদ্র ১৩৬৩

পরিশিষ্ট
কবিতায় ব্যবহৃত শব্দের অর্থ

কবিতায় ব্যবহৃত শব্দ ব্যবহৃত শব্দের অর্থ
অ কি উহা কি
অগুরু চন্দন
অজ্ঞতার মূর্খতার
অনলে আগুনে
অরি শত্রু
অর্চনা পূজা
অলক্ষ্যে অসাক্ষাতে
অলি মৌমাছি
আছয় আছে
আবেগ নাকারা ব্যাকুলতা
আরোহী আরোহণকারী
আলি জমির আইল
ঐদিনের পরকালের
কক্ষে কোঠায়
করমে কাজে
করয় করে
করী হাতি
কলি অপ্রস্ফুটিত ফুল
কড়ি টাকা পয়সা
কাঞ্চন সোনা
কিরতীচূরা যশ
কুবের সে যুগের মহাধনপতি
কেলি খেলা
খেঁকি কুফুরী
গোকুল শ্রীকৃষ্ণের শৈশবের বাসস্থান
গো-চনা গোমূত্র
গোলক স্বর্গ
ঘাতক বধকারী
ঘোল মাঠা-দধি
জড়তা নির্বুদ্ধিতা
জাহির প্রচার
জিন হার মানায়
তবু দেহ
তফসির কোরানের ব্যাখ্যা
তরঙ্গ ঢেউ
তরঙ্গিণী নদী
তরণী নৌকা
তরুর গাছের
তারকা তারা
তিক্ত তেতো
তুষিতে সন্তুষ্ট করিতে
দক্ষসুতা দক্ষরাজার জন্যা
দরিদ্রস্য…কুতঃ গরীবের গুণ ভস্মে ঢাকা জ্বলন্ত অঙ্গারের ন্যায়। যে অন্নের চিন্তায় ব্যতিব্যস্ত, তাহার কবিত্ব থাকে কোথায়?
দহই দহন করে (ব্রজবুলি)
দশভূজা শ্রীদুর্গা
দিগন্তে বিতরে পৃথিবীর সীমা পর্যন্ত বিতরণ করে
দীন কাঙ্গাল
দীপ বাতি
দেবরাজ ইন্দ্র
ধরায় পৃথিবীতে
ধীমান বুদ্ধিমান
ধেনু গরু
নিকেতনে বাসস্থানে
নীরে জলে
নীড়ে বাসায় (পাখির)
পর্ণকুটির খড়ের ঘর
পরমাদ মুশকিল
পানে দিকে
পিত্রে পিতাকে
পুঞ্জ পুঞ্জ রাশি রাশি
পূত পবিত্র
পৌরব যশ
প্রকৃতি স্বভাব
প্রদীপ বাতি
প্রসূন ফুল
ফিঙ্গে ফেচুয়া পাখি
ফি-রোজ প্রতিদিন
ফুল্ল কুসুম ফোটা ফুল
বচনমধু কথার মিষ্ট
বন্দনা স্তব করা
বশ অধীন
বাসে গৃহে
বিপত্তারণ বিপদে উদ্ধারকারী
বিধু চন্দ্র
বিভো প্রভু
বিশ্বকর্মা জগত সৃষ্টিকারী
বীণা বাদ্যযন্ত্র বিশেষ
বীণাআপানি সরস্বতী
বেণু বাঁশি
ব্রক্ষ্ম সনাতন ভগবান
ভার্যা স্ত্রী
ভাষ বাক্য
ভূপ রাজা
ভোজ খাদ্য
মণ্ড ফেন
মদন কামদেব
মরমে মনে
মহেশ শিব
মাজী মাতাসাহেবানী বা নৌকার মাঝি
মূরতি চেহারা
মূঢ় মূর্খ
মোহমদে মত্ত মোহিত উন্মাদ
যজ্ঞ-যাগ দেবপূজা
যথা গৌরীশৃঙ্গচূড় সর্বোচ্চ পর্বতচূড়া সম
যবন অহিন্দু
রগড় কৌতুক
রজত রূপা
রতি লক্ষ্মী
রাঘব রামচন্দ্র
রোগাসুর রোগ
লীন লয় পাওয়া
শশী চাঁদ
শিবিকা বহে পাল্কি বহন করে
শুচি পবিত্র
শৈলশিখরে পাহাড়ের চূড়ায়
শোর উচ্চরব
ষড়রিপু কাম, ক্রোধাদি ছয় রিপু
সঘনে মেঘলোকে
সন্ধি সংযুক্তিস্থল
সলিতা প্রদীপের দাহ্য ন্যাকড়া
সংকল্প ইচ্ছা
সারদা শরৎকাল
সুবর্ণের সোনার
সুরপতি ইন্দ্র
সৌন্দর্য শোভা
সৌরভ সুগন্ধ
স্বর্ণকুটির সোনার ন্যায় গৃহ
হর্মে দালানে
হয় ঘোড়া
হাদিস মোহাম্মদ (সা.)-এর বাণী
হেম সোনা
হৈমবতী পার্বতী
হৃদাগার মন
0
Would love your thoughts, please comment.x
()
x