মোশি যাজকদের নিযুক্ত করলেন

১. প্রভু মোশিকে বললেন,

২. “হারোণ ও তার পুত্রদের সঙ্গে নাও। সেই সঙ্গে নাও পোশাক-পরিচ্ছদ, অভিষেকের জন্য তেল, পাপমোচনের নৈবেদ্যর ষাঁড়, দুটি পুরুষ মেষ এবং খামিরবিহীন রুটির ঝুড়ি।

৩. তারপর লোকদের একসঙ্গে সমাগম তাঁবুর প্রবেশ মুখে নিয়ে এসো।”

৪. প্রভুর আদেশ মতই মোশি সব কাজ করল। লোকরা সমাগম তাঁবুর প্রবেশ মুখে একসঙ্গে দেখা করল।

৫. তখন মোশি লোকদের বলল, “প্রভু ইস্রায়েলে আদেশ করেছেন এ হল তাই এবং তা অবশ্য কর্তব্য।”

৬. তারপর মোশি হারোণ ও তার পুত্রদের নিয়ে এল। জল দিয়ে সে তাদের ধৌত করল।

৭. এরপর মোশি হারোণকে বোনা অঙ্গরক্ষিণী পরালো এবং তার কোমরের চারপাশে কটিবন্ধ জড়াল। তারপর মোশি হারোণের গায়ে পোশাক পরিযে গায়ে এফোদ জড়াল এবং বোনা পটুকাতে গা বেষ্টন করে তা বাঁধল। এইভাবে মোশি হারোণের গায়ে এফোদ পরাল।

৮. মোশি হারোণের বুকে বক্ষাবরণ পরিযে দিল। তারপর সে বক্ষাবরণের ভেতরে উরীম ও তূম্মীম রাখল।

৯. মোশি হারোণের মাথা লম্বা কাপড় জড়ানো পাগড়ি দিয়ে ঢেকে দিল। এক টুকরো সোনা পাগড়ির সামনেটায় বসিয়ে দিল। এই সোনার টুকরোটা হল পবিত্র মুকুট। প্রভুর আজ্ঞা মতই মোশি এটা করেছিল।

১০. এরপর মোশি অভিষেকের তেল নিল এবং পবিত্র তাঁবুর ওপর ও তার মধ্যেকার সমস্ত জিনিসের ওপর তা ছিটিয়ে দিল। এইভাবে মোশি তাদের পবিত্র করল।

১১. মোশি বেদীর ওপর ঐ তেলের কিছুটা সাতবার ছিটিয়ে দিল। মোশি বেদীর ওপর এবং তৎসংলগ্ন থালা, গামলায় এবং তার তলদেশে তেল ছিটিয়ে সব কিছুকে পবিত্র করল।

১২. তারপর কিছুটা অভিষেকের তেল নিয়ে সে হারোণের মাথায় ঢালল, এইভাবে মোশি হারোণকে পবিত্র করল।

১৩. মোশি এরপর হারোণের পুত্রদের নিয়ে এসে তাদের বোনা অঙ্গরক্ষিণী পরাল। পরে তাদের গায়ে কটিবন্ধ জড়িয়ে দিল। তারপর তাদের মাথায় ফেট্টি বাঁধল। প্রভুর আজ্ঞামতই মোশি এসব করল।

১৪. এরপর মোশি পাপ মোচন নৈবেদ্যর ষাঁড়টিকে নিয়ে এল। পাপ মোচন নৈবেদ্যর ষাঁড়ের মাথার ওপর হারোণ ও তার পুত্ররা হাত রাখল।

১৫. তারপর মোশি ষাঁড়টিকে হত্যা করে তার রক্ত সংগ্রহ করল। মোশি তার আঙুল দিয়ে কিছু রক্ত বেদীর সব কোণে লাগাল। এইভাবে মোশি বেদীটিকে বলির উপযোগী করে তৈরী করল। তারপর সে বেদীর মেঝেয় রক্ত ঢেলে দিল। লোকদের পাপ মুক্ত করার জন্য এইভাবে মোশি বেদীটিকে বলির জন্য তৈরী রাখল।

১৬. সে যকৃত থেকে সব চর্বি বের করে নিল এবং সেই সঙ্গে দুটি বৃক্ক ও তাদের ওপরকার সব চর্বিটুকু নিয়ে সেই বেদীর ওপর তাদের পোড়াল।

১৭. কিন্তু মোশি ষাঁড়ের চামড়া, তার মাংস এবং শরীরের বর্জ্য পদার্থকে তাঁবুর বাইরে নিয়ে এল। তাঁবুর বাইরে আগুনে মোশি সেগুলিকে পোড়াল। প্রভুর আজ্ঞামতই মোশি এসব করল।

১৮. এরপর মোশি হোমবলির জন্য পুরুষ মেষকে নিয়ে এল। হারোণ এবং তার পুত্ররা সেই পুরুষ মেষের মাথায় তাদের হাত রাখল।

১৯. মোশি তারপর পুরুষ মেষটিকে হত্যা করল। সে বেদীর চারপাশে ও বেদীর ওপরে পুরুষ মেষটির রক্ত ছিটিয়ে দিল।

২০. মোশি পুরুষ মেষটিকে টুকরো টুকরো করে কাটল। সে ভিতরের অংশগুলি ও পা জল দিয়ে ধুয়ে দিল, তারপর বেদীর ওপর গোটা পুরুষ মেষটিকে পোড়াল। মোশি মাথা ও শরীরের টুকরোগুলো এবং চর্বি পোড়াল। এ হল আগুনের তৈরী হোমবলি। এর গন্ধ প্রভুকে খুশী করে। প্রভুর আজ্ঞামত মোশি ঐগুলি করল।

২১-২২. তারপর মোশি অন্য পুরুষ মেষটিকে নিয়ে এল। হারোণ আর তার পুত্রদের যাজক হিসাবে নির্দিষ্ট করার জন্যই এই পুরুষ মেষটি ব্যবহার করা হয়েছিল। তারা এই পুরুষ মেষটির মাথায় তাদের হাত রেখেছিল।

২৩. এরপর মোশি পুরুষ মেষটিকে হত্যা করল। এর কিছুটা রক্ত সে হারোণের কানের লতিতে, তার ডান হাতের বুড়ো আঙুলে এবং হারোণের ডান পায়ের বুড়ো আঙুলের মাথায় ছোঁয়াল।

২৪. তারপর সে হারোণের পুত্রদের বেদীর কাছাকাছি নিয়ে এল। রক্তের কিছুটা তাদের ডান কানের লতিতে, ডান হাতের বুড়ো আঙুলে এবং ডান পায়ের বুড়ো আঙুলের মাথায় লাগিয়ে দিল। এরপর সে বেদীর চারপাশে রক্ত ছিটিয়ে দিল।

২৫. এরপর মোশি চর্বি, লেজ, ভিতরের সমস্ত অংশগুলোর চর্বি, যকৃত ঢাকা চর্বি, বৃক্ক দুটি এবং তাদের চর্বি এবং ডান দিকের উরু নিল।

২৬. প্রত্যেকদিন প্রভুর সামনে এক ঝুড়ি ভর্তি খামিরবিহীন রুটি রাখা হত। মোশি এই রুটিগুলির একটি, তেল মাখানো রুটির একটি ও একটি খামিরবিহীন পাতলা রুটি নিল। সেই সব রুটির টুকরোগুলো মোশি চর্বির ওপর এবং পুরুষ মেষের ডান উরুর ওপর রাখল।

২৭. তারপর মোশি সেই সমস্ত কিছু হারোণ ও তার পুত্রদের হাতে দিয়ে দিল। টুকরোগুলোকে মোশি দোলনীয় নৈবেদ্যরূপে প্রভুর সামনে দোলালো।

২৮. তারপর হারোণ ও তার পুত্রদের হাত থেকে সেগুলিকে নিয়ে মোশি বেদীর হোমবলির ওপর পোড়াল। হারোণ ও তার পুত্রদের যাজক হিসাবে নিয়োগ করার জন্যই এই নৈবেদ্য। এ নৈবেদ্য আগুনের দ্বারা তৈরী নৈবেদ্য। এর গন্ধ প্রভুকে খুশী করে।

২৯. মোশি বক্ষদেশটা নিয়ে প্রভুর সামনে তা দোলনীয় নৈবেদ্য হিসেবে দোলাল। যাজকদের নিয়োগ করার ব্যাপারে পুরুষ মেষের এই অংশ হল মোশির অংশ। মোশি প্রভুর আজ্ঞামতই এসব কাজ করল।

৩০. মোশি বেদীর ওপর পড়ে থাকা অভিষেকের তেলের কিছুটা ও কিছুটা রক্ত নিয়ে হারোণের ওপর এবং হারোণের পোশাকের ওপর ছিটিয়ে দিল। হারোণের সঙ্গে সেবারত ছেলেদের এবং তাদের পোশাকের ওপরেও কিছুটা ছিটিয়ে দিল। এইভাবে মোশি হারোণ, তার কাপড়-চোপড়, তার ছেলেদের এবং ছেলেদের কাপড়-চোপড় শুচিশুদ্ধ করল।

৩১. তারপর মোশি হারোণ ও তার পুত্রদের জিজ্ঞাসা করল, “আমার আদেশ তোমাদের মনে পড়ে তো? আমি বলেছিলাম, ‘হারোণ এবং তার পুত্ররা এই সমস্ত জিনিস অবশ্যই আহার করবে।’ সুতরাং যাজক নির্বাচনের অনুষ্ঠান থেকে রুটির ঝুড়ি আর মাংস নিয়ে নাও। সমাগম তাঁবুর প্রবেশ মুখে মাংসটাকে সিদ্ধ করো। সেই খানেই মাংস আর রুটি খেও। আমি ইস্রায়েলে বলছি সেইমতো এটা করো।

৩২. যদি মাংস বা রুটির কোন কিছু পড়ে থাকে তবে তা পুড়িয়ে ফেল।

৩৩. যাজক নির্বাচনের অনুষ্ঠান চলবে সাতদিন ধরে। সেই অনুষ্ঠান শেষ না হওয়া পর্যন্ত তোমরা অবশ্যই সমাগম তাঁবুর প্রবেশ পথ ছাড়বে না।

৩৪. আজ ইস্রায়েলে করা হল, প্রভু সেইসব করতেই আজ্ঞা দিয়েছেন। তোমাদের শুচি করতেই তিনি এই সব আজ্ঞা দিয়েছেন।

৩৫. তোমরা অবশ্যই সমাগম তাঁবুর প্রবেশ মুখে সাতদিন ধরে দিনরাত থাকবে। যদি তোমরা প্রভুর আজ্ঞা না মানো তাহলে তোমরা মারা যাবেদ। প্রভু আমাকে এইসব আজ্ঞা দিয়েছেন।”

৩৬. তাই হারোণ ও তার পুত্ররা প্রভু মোশিকে যা যাকরতে আজ্ঞা দিয়েছিলেন সেসবই করল।