ইন্টারনেট ও টেকনোলজির এই জয়জয়কার যুগে হ্যাকিং শব্দটির সঙ্গে আমরা এতোটাই নেগেটিভ ভাবে পরিচিত যে, হ্যাকিং শব্দটি শুনলেই একটি গা ছমছম অনুভূতির কাজ করে এবং হ্যাকার শব্দটি শুনলেই যেন সাইবার ক্রাইমের বিভিন্ন রকমের ফ্লেভার পাই। আসলে বাস্তবতার সঙ্গে আমাদের এসব চিন্তা চেতনার সাদৃশ্য বা বৈসাদৃশ্য কতটুকু, তা জানার বা বোঝার আগ্রহটাই হারিয়ে ফেলেছি। কাজেই, হ্যাকিং এবং হ্যাকার শব্দ দু’টিকে আমরা যে যেভাবে গলঃধকরণ করেছি, সে ঠিক সেভাবেই উগরে দিচ্ছে।

টেকনোলজির ভালো এবং মন্দ বলে কিছু হয়না। ইহার ভাল-মন্দ নির্ভর করে ব্যবহারকারীর উপর। হ্যাকিং এর উদ্দেশ্য হল সাইবার জগতের নিরাপত্তা রক্ষা করা। এখন, এই প্রক্রিয়ার মাধ্যমেই যদি কেউ সাইবার জগতের ক্ষতি সাধন করে, তাহলে এর জন্য হ্যাকিং সিস্টেম নিশ্চয়-ই দায়ী হতে পারে না।

হ্যাকিং শেখার পূর্বে আমাদের জেনে নেয়া উচিত, হ্যাকিং এবং হ্যাকার কি এবং কেন।

হ্যাকিং শেখাটা আমাদের জন্য কতটা এবং কেন জরুরী।

কোন কোন মাধ্যমে হ্যাকিং করা যায় এবং একজন হ্যাকার হতে কি কি প্রয়োজন।

0
Would love your thoughts, please comment.x
()
x