ওঝা সন্দেহভাজনদের হাতে ধরিয়ে দেয় একটা করে খোসা সহ গোটা পাকা কলা, চলতে থাকে তন্ত্র- মন্ত্র। মন্ত্রের পাঠ চুকতে একজন করে সন্দেহভাজন মানুষ এগিয়ে আসেন। কলার খোসা ছাড়ায় সকলের সামনে। খোসা ছাড়াবার পর ওঝা পরীক্ষা করে দেখেন কলাটার ভিতরটা দু’টুকরো করে কাটা কিনা। গোটা থাকলে কলা ধরেছিল যে খায়ও সে। এরই মধ্যে একজনের ক্ষেত্রে ঘটে যায় বিস্ময়কর কিছু। খোসা ছাড়াতেই দেখা যায় কলাটা পরিষ্কার দু’টুকরো করে কাটা। অবাক কান্ড!

তখনও খোসা পরীক্ষা করলে দেখা যায়, খোসা গোটাই রয়েছে।

প্রতিটি আপাত-অলৌকিক ঘটনার মতই চোরের কলা কাটা পড়ে মন্ত্রে নয়, কৌশলে। কৌশলটাও অতি সহজ সরল। একটা গোটা কলা নিল। একটা পরিষ্কার ছুঁচ। এবার ছুঁচটা কলার যে কোনও এক জায়গায় ঢুকিয়ে দিয়ে ধীরে ধীরে কলার শাঁসের চার-পাশটা ঘোরান। পুরোটা ঘুরান হলে ছুঁচটা বের করে নিন। কলার খোসার গায়ে ছুঁচের সূক্ষ্ম ছিদ্র ছাড়া আর কিছু নজরে পড়বে না। অথচ ভিতরের কলাটা কাটা পড়েছে ছুঁচটা পুরোটা ঘুরে আসার ফলে। খোসা ছাড়াতেই কাটা কলা দৃশ্যমান হবে।